বকশীগঞ্জ সীমান্তে গুলিতে নিহতের লাশ ফেরত দিল বিএসএফ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে নিহত শিক্কু মিয়ার (৪০) লাশ অবশেষে অনেক নাটকীয়তার পর বাংলাদেশকে হস্তান্তর করেছে ভারত।

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বকশীগঞ্জ সীমান্তের কামালপুর ইউনিয়নের স্থলবন্দর পয়েন্ট দিয়ে লাশটি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছে হস্তান্তর করে বিএসএফ।

এরআগে সোমবার ভোরে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের আন্তর্জাতিক সীমানা পিলার ১০৮৮ নম্বর সংলগ্ন ভারতের ফুরাংপাড়া নামক স্থানে তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। পরে ভারত-বাংলাদেশ পতাকা বৈঠকের পর লাশটি নিয়ে যায় বিএসএফ।

নিহত শিক্কু মিয়া বাংলাদেশের বকশীগঞ্জ জেলার কামালপুর ইউনিয়নের লাউচাপড়া গ্রামের ফারাজ উদ্দিনের ছেলে। রবিবার রাত থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। লাশটি তার সন্দেহ করা হলেও ভারতীয় পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যায়।

এদিকে ছবি দেখে শিক্কু মিয়ার স্ত্রী মলিদা বেগম লাশটি তার স্বামীর বলে চিহ্নিত করলে ব্যাটালিয়ান পর্যায়ে আলোচনা শেষে ফেরত দিতে সম্মত হয় বিএসএফ।

ভারতের পক্ষে ২৮ বিএসএফ ব্যাটালিয়ান সহকারী কমাণ্ডার পি ডলি ও বাংলাদেশের পক্ষে বিজিবির সুবেদার আজমত আলীর নেতৃত্বে পতাকা বৈঠক শেষে লাশটি ফেরত দেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, লাশটি প্রথমে অজ্ঞাত ছিল। ভারতে তার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাশটি আমরা গ্রহণ করেছি। তারপর পরিবারের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

dailykagojkolom.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।