রেলওয়েকে অত্যাধুনিক রূপ দিতে মহাপরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে —রেলমন্ত্রী

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, ‘বাংলাদেশ রেলওয়েকে ঢেলে সাজাতে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার। ইতোমধ্যে নতুন বগি ও লোকমোটিভ ইঞ্জিন আমদানি করা হয়েছে। যাত্রীসেবার মানও আগের তুলনায় আধুনিকায়ন এবং উন্নত হয়েছে।’
রেলমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) দুপুরে আন্তঃনগর ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস ট্রেনের নতুন সাজে যাত্রা উপলক্ষে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ রেলস্টেশনে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
রেলমন্ত্রী বলেন, ‘জামালপুর-ময়মনসিংহ-ঢাকা রুটে শীঘ্রই ডাবল লাইনের কাজ শুরু হবে। তখন জামালপুর থেকে ঢাকায় ট্রেনযোগে যাতায়াতের সময় অনেক কমে যাবে। সকল আন্তঃনগর ট্রেনে নারী, শিশু, সিনিয়র নাগরিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের আসন সংরক্ষিত রাখার সম্ভাব্যতা যাচাই করে আইন অনুযায়ী আসন সংরক্ষিত রাখার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’
তিনি আরো বলেন, রেলওয়ে এতদিন অবহেলিত ছিল। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে মৃতপ্রায় রেলপথের প্রাণ ফিরিয়ে এনেছে। রেলপথের উন্নয়নের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ চলছে।’
এসময় তিনি বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি দেওয়ানগঞ্জ থেকে চট্রগ্রাম যাত্রা এবং এই রেল পথে আরো একটি আন্তঃনগর ট্রেন সার্ভিস চালুসহ দেওয়ানগঞ্জ, ইসলামপুর, সরিষাবাড়ী স্টেশন ও জামালপুর জংশনটি আধুনিকায়নের ঘোষনা দেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্ব) মহাপরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন সভাপতিত্ব করেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান, জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক সরদার সাহাদাত আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মোহাম্মদ বাকী বিল্লাহ্, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আহম্মেদ চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইস্তিয়াক হোসেন দিদার, সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান হোসেন, নির্বাহী অফিসার এ কে এম আব্দুল্লাহ্ বিন রশীদ, পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ শাহানশাহ্ প্রমুখ।
উল্লেখ্য, পুরাতন বগি দিয়ে আন্তঃনগর ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা-জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ রুটে চলাচল করছিল। নতুন বগি সংযোজনের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। অত্যাধুনিক নতুন কোচ উদ্বোধন হওয়ায় এ রুটে দ্বিতীয়বারের মতো ও জেলায় তৃতীয়বারের মতো এসি ট্রেন যুক্ত হলো।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস ট্রেনটি দেওয়ানগঞ্জ থেকে ভোর ৬.৪০টায় ছেড়ে জামালপুর-ময়মনসিংহ-গফরগাঁও স্টেশন হয়ে ঢাকায় পৌঁছাবে বেলা ১২.৪৫টায়। ফের ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জ স্টেশনের উদ্দেশ্যে ছাড়বে বিকেল ৬.১৫টায়।
৭৯৫ আসনবিশিষ্ট ট্রেনে ১৬৫টি এসি সিট ও ৬৩০টি শোভন চেয়ার সিট রয়েছে। ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জ পর্যন্ত প্রতিটি এসি সিট ৪২৭ টাকা ও শোভন চেয়ার ২২৫ টাকা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।
dailykagojkolom.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।