গাইবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান পদে মাকছুদুর রহমান আনছারীর মনোনয়ন সংগ্রহ

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন মাকছুদুর রহমান আনছারী। বুধবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে মাকছুদুর রহমান আনছারীর পক্ষে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তার দলীয় অনুসারীরা।
জানা গেছে, প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার মাকছুদুর রহমান আনছারী ওই ইউপি’র চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালনসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদেও আসীন রয়েছেন।
এর আগেও তিনি টানা ৯ বছর ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এ সময় জনপ্রতিনিধির খেতাব অর্জনের পাশাপাশি একই সাথে রাজনৈতিক দলের প্রায় দেড় ডজনখানেক পদ-পদবিও করেছেন ক্যারি। পেয়েছেন এলাকাবাসীর অফুরন্ত ভালোবাসা ও অগাধ শ্রদ্ধা। সঞ্চয় করেছেন অনেক নাম যশও। নিজের আমলনামায় যুক্ত করেছেন অন্তত দেড় যুগের জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব পালনের বিশাল অভিজ্ঞতা।
ইউপি সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে নৌকা প্রতীকে মাকছুদুর রহমান আনছারী পুনরায় চেয়ারম্যান পদে বিজয় হন। সেই থেকে এখন পর্যন্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন তিনি। আগামী ইউপি নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হওয়ার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।
এলাকাবাসী জানান, ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে মাকছুদুর রহমান আনছারী এবার নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে বিজয় হলে জয়টা হবে হ্যাট্টিক।
দলীয় ভক্তদের মতে, ইউপি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বিশেষ করে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মনজয় করতে মাকছুদুর রহমান আনছারী বদ্ধপরিকর।
গত বছর বন্যাকবলীত খানাখন্দে নিমজ্জিত চলাচলের অনুপযোগী রাস্তা-ঘাটের মেরামত কাজ নিজস্ব অর্থায়নে করে দিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান মাকছুদুর  রহমান আনছারী।
জানা গেছে, গত ১৭জুলাই বিকালে বন্যার পানির তুড়ে ইসলামপুর-ঝগড়ারচর রাস্তায় গাইবান্ধা ইউনিয়নের চন্দনপুর বন্দেআলী ব্রিজের এ্যাপোচের দুই পাশের মাটি ক্রমেই সরে যেতে থাকে। এতে উপজেলা শহরের সাথে ইউনিয়নের প্রায় ১০টি গ্রামসহ পাশ্ববর্তী শেরপুর জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে হাজির হন ইউপি চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান আনছারী। তিনি দেরি না করে দ্রুত এলাকাবাসী ও জনস্বার্থে যোগাযোগ ব্যবস্থা তরানিত্ব করতে নিজস্ব অর্থায়নে ব্রিজের এ্যাপোচের মাটি ভরাট করতে শ্রমিক নিয়োগ করে দেন। ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থা আগের মতই চলমান রয়ে যায়।
এর আগে  চারদিন আগে ১৩ জুলাই চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান আনছারী বন্যা ও অতিবৃষ্টির ফলে ভাঙনকবলীত ওই রাস্তার বিভিন্ন স্থানে নিজস্ব অর্থায়নে মেরামতের কাজ শুরু করেন। তাকে সহযোগিতা করেন গাইবান্ধা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।
এর আগে ২০১৮ সালের ৫ এপ্রিল উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউনিয়নের ১০টি পরিবারের মাঝে ইউপি চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান আনছারী ত্রাণ প্রকল্প থেকে মাথাপিছু এক বান্ডিল ঢেউ টিন ও তিন হাজার টাকার চেক বিতরণ করেন। এ সব জনহিতকর কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখায় দলীয় ও সচেতন মহলে ব্যাপক প্রশংসা পান তিনি।
ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ আজাদ বারী জানান, ‘মাকছুদুর রহমান আনছারীকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলে খুব সহসায় বিপুল নৌকা প্রতীককে বিজয় করা সম্ভব। যদি অন্য কাউকে নৌকা প্রতীক দেয়া হয়, সেক্ষেত্রে খুব বেশী পরিশ্রমে নৌকার বিজয় করা যেতে পারে।’
চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান আনছারী জানান, ‘নিজের প্রয়োজনে নয়। বরং এলাকার উন্নয়ন আর দলকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে দলীয়কর্মী ও সমর্থকদের অনুরোধে আমাকে আগামী ইউপি নির্বাচনে অংশ নেওয়া লাগতে পারে। সেলক্ষ্যে এলাকাবাসী এবং দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকরা আমার পক্ষে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।’
dailykagojkolom.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।