সরিষাবাড়ীতে নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী ও শ্বশুর পলাতক

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে রোকসানা আক্তার (২০) নামে এক নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের মহাদান (বিলপাড়) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নববধূ ওই গ্রামের লাভলু মিয়ার (২২) স্ত্রী। ঘটনার পর হাসপাতালে লাশ ফেলে স্বামী ও শ্বশুর পালিয়ে যায়। ঘটনাটি নিহতের স্বামী বিষপানে আত্মহত্যা দাবি করলেও নিহতের বাবা হত্যার অভিযোগ করেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, ছয়মাস আগে মহাদান গ্রামের আফছার আলীর ছেলে লাভলু মিয়ার সাথে একই গ্রামের আব্দুল রাজ্জাকের মেয়ে রোকসানার বিয়ে হয়। লাভলু মিয়া পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রি। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ ছিল। সোমবার দুপুরে রোকসানা বিষ পান করেছে বলে তার স্বামী তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপরই স্বামী লাভলু ও তার বাবা আফছার হাসপাতালে লাশ ফেলে পালিয়ে যান।

নিহতের বাবা আব্দুর রাজ্জাক জানান, সপ্তাহখানেক আগে মেয়ে আমার বাড়িতে আসে। কিন্তু জামাই ও তার বাবা-মা না আসায় সোমবার সকালে মেয়ে আমার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়িতে চলে যায়। দুপুরের দিকে খবর পাই যে, মেয়ে নাকি বিষ পান করেছে।.মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না, বরং তাকে হত্যা করে মুখে বিষ ঢেলে দেওয়া হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল মজিদ কালের কন্ঠকে জানান, লাশ উদ্ধার করে বিকেলে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের পরিবার ঘটনাটি হত্যার পর মুখে বিষ ঢেলে দেওয়ার দাবি করেছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

dailykagojkolom.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।