ফারজানা ইয়াসমিন-এর কবিতা “বাংলার স্বাধীনতা”

ফারজানা ইয়াসমিন

বাংলার স্বাধীনতা

 

বাংলার পতাকায় আজ শহীদের রক্তের বিনিময়ে লাল সূর্য উদীয়মান

বাংলার শস্য শ্যামলা সবুজের হাসি আজ বাংলার পতাকায় চিরসবুজের প্রাণ।

বাংলার স্বাধীনতা আনতে যারা দিয়ে গেল প্রাণ

তাদের নাম বাংলার বুকে রবে অম্লান।

নিজের দেহের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে

যারা রক্ষা করে গেছেন দেশের মাটির সম্মান।

বুকে ছিল একটাই শপথ—

এদেশের মানুষ স্বাধীন দেশে বাঁচবে চিরকাল।

একবার যারা বাজি ধরেছে দেশের জন্য প্রাণ

তারা কখনো পেছনে যাবে না, উজ্জ্বল করবেই দেশের নাম।

দেশকে যারা মায়ের মতো করে ভালোবাসা দিয়ে—

স্বাধীন ভাবে বাঁচার স্বপ্ন দেখে,

তারা তো কখনো জীবনের ভয় করে না স্বাধীনতার পতাকা উড়াতে।

ভালোবাসা তাদের মিথ্যা ছিল না, দেশ মাতার জন্য

তাই তো তারা জীবন দিতে করেনি কার্পণ্য।

লাখো শহীদের রক্তের দামে স্বাধীনতা হলো অর্জন

সারা বাংলায় ছিল সেদিন দেশের মানুষের বিজয়ের গর্জন।

মায়ের বুক খালি করে যে সন্তান গিয়েছিল যুদ্ধে

জীবনের বিনিময়ে সেই জননী গর্বিত হয়েছিল এই বঙ্গে।

সালাম তোমাদের জানাই কোটি কোটি—

এদেশের তরে তোমাদের রক্তের মান যেন রাখতে পারি।

শহীদের স্বপ্ন যেন পূরণ হয় বাংলার মাটিতে—

এই প্রত্যয় ধ্বনিত হোক বাংলার প্রতিটি ঘরে।

dailykagojkolom.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।